১০ টাকা কেজি দরে চাল দেওয়া হবে : প্রধানমন্ত্রী

0
1655
Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক নিউজ : বন্যার্তদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১০ টাকা কেজি দরে ৩০ কেজি করে চাল কিনতে পারবেন আপনারা। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৫০ লাখ মানুষ এ সুবিধা পাবেন।

তিনি আরো বলেন, বন্যা আক্রান্ত ৩২টি জেলায় এই পর্যন্ত ২২ হাজার ৬১৬ মেট্টিক টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বগুড়ায় বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে এক হাজার ১০০ মেট্টিক টন চাল। নগদ ২২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

শনিবার বিকেল সোয়া ৩ টার দিকে সারিয়াকান্দি ডিগ্রি কলেজ মাঠে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বন্যার পানিতে ডুবে যাদের বইপুস্তক নষ্ট হয়ে গেছে তাদের নতুন বই দেওয়া হবে। কৃষক যেন পুনরায় তার জমি চাষ করতে পারেন সে ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। ১২ জেলায় সাত হাজার ৮৮০জন কৃষককে এক বিঘা জমিতে ধান লাগাতে পারেন সে পরিমাণ চারা দেওয়া হবে। এ জন্য আগেই এক হাজার ভাসমান বীজতলা তৈরী করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রত্যেককে ঘর বানিয়ে দেওয়া হবে। প্রত্যেককে জমি দেওয়া হবে। স্কুল-কলেজ মেরামত করে দেওয়া হবে। নদী ভাঙনরোধে প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

বানভাসিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কেউ না খেয়ে থাকবে না। সরকার সে ব্যবস্থা নেবে। বন্যার্ত কোনো মানুষ যেন কষ্ট না পায় সেদিকে লক্ষ্য রেখে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

বিএনপি-জামায়াত জোটের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ওরা ক্ষমতায় এলে শুধু ভোগ নিয়ে ব্যস্ত থাকে। মানুষের ভাগ্যের কোনো উন্নয়ন হয় না। উন্নয়ন হয় তাদের ভাগ্যের। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার উৎখাতের নামে আগুন নিয়ে সন্ত্রাস করেছে। পরপর তিনটি বছর সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়েছে। জিয়াউর রহমানও একই কাজ করেছে। জাতির পিতার খুনিদের বিদেশে চাকরি দিয়ে পুরস্কৃত করেছে। আমার বাবার বিচারের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছিল।

প্রধান অতিথির ভাষণ শেষে বেলা ৩ টা ৫৫ মিনিটে বন্যাদুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ ও ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের মাঝে ধানের চারা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। পরে তিনি একই কলেজের হলরুমে নানা শ্রেণির পেশার গণ্যমান ব্যক্তিবর্গ ও প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

জনসভায় সরকারের কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, ত্রাণবিষয়ক সম্পাদক সুজিত কুমার রায়, সারিয়াকান্দি-সোনাতলা আসনের এমপি আব্দুল মান্নান, বগুড়া জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ নূরে ‍আলম সিদ্দিকী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী গাইবান্ধা থেকে হেলিকপ্টারে বেলা ২ টা ৪০ মিনিটে সারিয়াকান্দি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পৌঁছেন। সেখানে থেকে গাড়িতে করে সারিয়াকান্দি ডিগ্রি কলেজ মাঠে আয়োজিত জনসভাস্থলে এসে উপস্থিত হন তিনি।

শেয়ার করুন