নিম্নচাপে সারাদিন বৃষ্টি : কমতে পারে শনিবার

0
1577
Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক নিউজ : পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট নিম্নচাপের কারণে বৃহস্পতিবার ভোর থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় শুরু হওয়া হালকা থেকে মাঝারী বৃষ্টিপাত আজ শুক্রবার আরও বেড়েছে। আবহাওয়া অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, আজ সারা দিনব্যাপী বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে। নিম্নচাপের কারণে সাগর উত্তাল থাকায় সমুদ্রবন্দরগুলোতে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত জারি আছে।

অাবহাওয়া অফিসের একজন অাবহাওয়াবিদ শুক্রবার (২০ অক্টোবর) জানান, ঢাকাসহ সারাদেশেই বৃষ্টিপাত হচ্ছে। শনিবার বিকেল নাগাদ বৃষ্টি কমতে শুরু করবে। এছাড়া নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কা নেই।

অাবহাওয়া অফিস জানায়, নিম্নচাপটি পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এটি আরও ঘণীভূত হতে পারে এবং উত্তর/উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। শুক্রবার সকালে ভারতের উড়িষ্যার দিকে অগ্রসর হচ্ছিল।

 

এর প্রভাবে ঢাকা, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার আবহাওয়ার অবস্থায় সামান্য পরিবর্তন হতে পারে। অাগামী পাঁচ দিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা হ্রাস পেতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক জানান, সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হতে পারে।

অাবহাওয়া অফিস জানায়, নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেইসঙ্গে তাদের গভীর সাগরে বিচরণ না করতেও বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর।

শুক্রবার দিবাগত রাত ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদী বন্দরে স্থানভেদে ১ ও ২ নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

শেয়ার করুন