আইনজীবী রথিশ হত্যা মামলায় স্ত্রীর মৃত্যুদণ্ড

0
1611
Print Friendly, PDF & Email

গাজীপুর প্রতিদিন ডেস্ক : রংপুরের আইনজীবী রথিশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনাকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনায় তার স্ত্রী দীপা ভৌমিককে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার (২৯ জানুয়ারি) দুপুরে রংপুরের জেলা ও দায়রা জজ এবিএম নিজামুল হক আদালতে দীপাকে দোষী সাব্যস্ত করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আদেশ দেন। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আসামি দীপাকে কারাগার থেকে আদালতে নিয়ে আসা হয়।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৯ মার্চ রংপুর নগরীর আলমনগর বাবু পাড়া মহল্লার বাসা থেকে নিখোঁজ হন বাবু সোনা। এ ঘটনায় পুলিশ নিহত বাবু সোনার স্ত্রী দীপা ও প্রেমিক কামরুল ইসলামকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে তাদের দেওয়া জবানবন্দির ওপর ভিত্তি করে নগরীর তাজহাট মোল্লা পাড়া গ্রামে কামরুলের বাসার ভেতরে গর্ত করে রাখা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
এ ঘটনায় রথিশের ছোটভাই সুশান্ত ভৌমিক বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় পুলিশ নিহতের স্ত্রী দীপা ও কামরুল ইসলামকে আসামি করে চার্জশিট দাখিল করে। ৩৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত দীপা সরকারকে দোষী সাব্যস্ত করে ফাঁসির আদেশ দেন।
রথিশ ছিলেন জাপানি নাগরিক হোশিও কুনি হত্যা মামলার বিশেষ পিপি, আওয়ামী লীগ রংপুর জেলা কমিটির আইনবিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ রংপুরের সভাপতি, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক।
রথিশ-দীপার দুই ছেলেমেয়ের মধ্যে ছেলে আইন বিষয়ে পড়াশোনা করছেন। আর মেয়ে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

শেয়ার করুন