আদালতে দন্ডপ্রাপ্ত ওফাজ উদ্দিন, কন্ট্রাকে জেল খাটছেন জাহাঙ্গীর

0
2265
Print Friendly, PDF & Email

মো: শহিদুজ্জামান, নিজেস্ব প্রতিবেদক : গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার কাপাশিয়াচালা এলাকার ওফাজ উদ্দিন বনের জমি জবরদখলের মামলায় ৩ বছরের দন্ডপ্রাপ্ত হয়েছেন।আরও একটি বন মামলায় তার বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট রয়েছে। আটাবহ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের কাপাশিয়াচালা এলাকার মৃত কছিম উদ্দিনের ছেলে ওফাজ উদ্দিন কয়েকটি মামলার আসামি এর মধ্যে দু’টি বনের মামলাসহ মারামারি ও ভাঙচুর মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই বনের একটি মামলায় গাজীপুর বনআদালত থেকে দন্ডপ্রাপ্ত হয়েছে ওফাজ উদ্দিন। কিন্তু ওফাজ উদ্দিনের পরিবর্তে কন্ট্রাকে জেল খাটছে কালিয়াকৈর উপজেলার খোলাপাড়া এলাকার আতর আলীর ছেলে গাড়ীচালক মো. জাহাঙ্গীর।
৫ লাখ টাকার বিনিময়ে এবং দ্রুত জামিন করানোর শর্তে জাহাঙ্গীরকে আদালতে আত্মসমর্পনের পর জেল হাজতে পাঠায় বলে ওফাজ উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে।
রোববার(৩১ মার্চ) দুপুরে কাশিমপুর হাই-সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে ওফাজ উদ্দিনের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে সাক্ষাতের জন্য ওফাজ উদ্দিনের নামে স্লিপ পাঠালে তার পরিবর্তে দেখা যায় মো. জাহাঙ্গীরকে। এসময় মো. জাহাঙ্গীরের এক চাচা তাকে শনাক্ত করেন এটা ওফাজ উদ্দিন না তার ভাতিজা জাহাঙ্গীর।
এ বিষয়ে কিছু না বললেও স্বীকার করেছেন সে ওফাজ উদ্দিন না,তার নাম মো. জাহাঙ্গীর।
কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কালিয়াকৈর উপজেলার কাপাশিয়াচালা (বর্তমান বিশ্বাসপাড়া) এলাকার মৃত কছিম উদ্দিনের ছেলে ওফাজ উদ্দিন বনের দু’টি মামলা এবং একটি মারামারি ও ভাঙচুর মামলার আসামি।বনের জমি জবর দখল করায় ওফাজ উদ্দিনের বিরুদ্ধে ২০০৬ সালে মামলা (নং-১৯৩-২০০৬) দায়ের করে বনবিভাগ। সেই মামলায় ২০১৮ সালে ৭ আগষ্ট গাজীপুরের বন আদালত মামলার একটি ধারায় ওফাজ উদ্দিনকে ২ বছরের কারাদন্ডাদেশ এবং ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়,একই মামলার অন্য একটি ধারায় ১ বছরের কারাদন্ড ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদন্ড প্রদান করে বন আদালতের বিচারক। আদালতে বিচারক মামলার রায় ঘোষনার সময় আসামী ওফাজ উদ্দিন পলাতক ছিলেন। কিন্তু ওফাজ উদ্দিনের পরিবর্তে বনের দন্ডপ্রাপ্ত মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে যান জাহাঙ্গীর। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠান। জাহাঙ্গীর নিজেও মাদকাসক্ত ও মাদক মামলাসহ কয়েকটি মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী।
চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের ২৬ তারিখ থেকে কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে টাকার বিনিময়ে ওফাজ উদ্দিনের বদলে সাজাভোগ করছেন জাহাঙ্গীর। এর আগে তিনি গাজীপুর জেলা কারাগারে বন্দি ছিলেন। এখন পর্যন্ত তার জামিন হয় নাই। আর পালিয়ে আছেন মূল আসামি ওফাজ উদ্দিন।
আসামী ওফাজ উদ্দিনের পক্ষে গতকাল সোমবার জেলা ও দায়রা জজ আদালত গাজীপুরে ফৌজদারী আপিল নং-৭০-১৯ এর শুণানী করা হয়।

ওফাজ উদ্দিন আটাবহ ইউনিয়ন বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক। সে বনের জমি দখলসহ নানা অপরাধমূলক কাজের সাথে জড়িত। স্থানীয় খোলা পাড়া গ্রামের মাটি ব্যবসায়ী সুলতানসহ কয়েকজন দালালের মাধ্যমে জাহাঙ্গীরকে ফুসলিয়ে টাকার লোভ দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা দেওয়ার কথা বলে তার পরিবর্তে জেল খাটাচ্ছেন। আর ওফাজ উদ্দিন পালিয়ে থেকে অপরাধমূলক কাজ করছেন এবং তার সব মামলার জামিন করানোর জন্য উচ্চ আদালতে ছুটোছুটি করছেন।
জাহাঙ্গীরের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তার মা জানায়,২ মাস যাবত ছেলে বাড়ী আসে না কোথায় গেছে তাও জানিনা।
এ ব্যাপারে ওফাজ উদ্দিনের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার শাহজাহান আহম্মেদ জানান, এমন ঘটনা আমার জানা নেই। যেহেতু ঘটনাটি জানতে পেরেছি বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। ঘটনার সত্যতা পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন