কালিয়াকৈরে ওয়ালটন কারখানায় ইফতার খেয়ে ৩ শ্রমিকের মৃত্যু, সড়ক অবরোধ

0
319
Print Friendly, PDF & Email

কালিয়াকৈর সংবাদদাতা : গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ওয়ালটন কারখানায় ইফতার খাওয়ার পর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩ শ্রমিক মারা গেছেন। এর জেরে সন্ধ্যায় কারখানার উত্তেজিত শ্রমিকরা কালিয়াকৈর-নবীনগর সড়ক অবরোধ করে যানবাহনে আগুন ধরিয়ে দেয়। শ্রমিকরা কারখানায় প্রবেশের চেষ্টা চালায়। এ সময় কারখানার ভেতর থেকে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে কয়েকজন শ্রমিক ও সংবাদকর্মী আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়।

মৃত. তিন শ্রমিকরা হচ্ছেন- টাঙ্গাইল সদরের গোশাইর জওয়আইর এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে আশরাফ আলী (৩০), একই জেলার ভূঞাপুরের বারবারইয়ের আব্দুর রশিদের ছেলে আব্দুল বারেক বারী (২৯), সিরাজগঞ্জের চৌহালীর কুকি মধ্যপাড়ার বুদ্দু মিয়ার ছেলে ফরিদ মিয়া (২৮)। এছাড়া আলামিন হোসেন (২৮) নামের আরেক শ্রমিক মুমূর্ষ অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন।

রোববার (১৬ এপ্রিল) রাত ১০টায় এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ।

সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ বলেন, রোববার ইফতারের সময় কালিয়াকৈর থানার চন্দ্রায় ওয়ালটন কারখানায় ইফতার খেয়ে কয়েক শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে অসুস্থ শ্রমিকদের কাশিমপুর এলাকার শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল কেপিজি বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হয়। সেখানে ৩ শ্রমিক মারা গেছেন।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে প্রতিবাদে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে শ্রমিকেরা। এতে ঢাকা-চন্দ্রা মহাসড়কের যান চলাচল বন্ধ হয়ে বারইপাড়া থেকে চন্দ্রা কালিয়াকৈরর পর্যন্ত দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে জানিয়ে গাজীপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সানোয়ার হোসেন বলেন, ‘শ্রমিক মৃত্যুর খবর আমরা পেয়েছি। বিষয়টি যাচাই করে দেখা হচ্ছে। সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করতে পুলিশ কাজ করছে।’

এ ব্যাপারে ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রির ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর হুমায়ূন কবির বলেন, আমরা প্রতিদিন সব কর্মীকে ইফতার সরবরাহ করি। কয়েকজন ইফতার করার পর বাইরে থেকে এক ধরণের কোমল পানীয় কিনে খায়। এরপর থেকেই তারা অসুস্থ হয়ে পরে। বিষয়টি জানার পর তাদেরকে প্রথমে আমাদের কারখানা মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হয়। সেখানে তাদের অবস্থা খারাপ হলে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনজন মারা যান।

হুমায়ূন কবির বলেন, এই ঘটনায় এরই মধ্যে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে ঘটনাটি তদন্ত করে সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানানো হবে।

শেয়ার করুন