কালিয়াকৈরে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, নগদ টাকাসহ স্বর্ন অলংকার লুট

0
263
Print Friendly, PDF & Email

মো: আফসার খাঁন, কালিয়াকৈরে সংবাদদাতা:

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার মধ্যপাড়া দোয়ানীচালা এলাকায় বুধবার রাতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় কাঠ ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান মজনুর বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। ডাকাতরা মিজানুর রহমান মজনুর বাড়ি থেকে ৯ভরি সোনা ও ৮লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায় বলে জানা গেছে।

ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে মিজানুর রহমান মজনু বলেন, মুখোশ পরা ৮থেকে ১০জন ডাকাত রাত ২টার দিকে বাড়ির নিচ তলায় গেইট ভেঙে তার বাড়ির ২তলায় প্রবেশ করে। পরে ২তলার মেইন গেইট ভেঙে তার বেড রুমে প্রবেশ করে। এক পর্যায়ে তার হাত পা বেঁধে ফেলে ডাকাত দলটি। পর্যায়ক্রমে তার স্ত্রী, ছেলে এবং মেয়ের হাত পা বেঁধে ফেলে। পরে তাঁর গলা চেপে ধরে। এর পর চলে ডাকাতদের নির্যাতন। অস্ত্রের মুখে তাঁকে টেনে-হিঁচড়ে নির্যাতন করতে থাকে । সে সময় ডাকতরা বাড়ির কোথায় কী আছে জানতে চায়। আর একের পর এক আগাত করতে থাকে। এ ভাবে রুমের সবকিছু তছনছ করতে থাকে। পরে তাদের আলমারি ভেঙে এক ড্রয়ার থেকে ৮লাখ টাকা, আলমারির অপর ড্রয়ার ভেঙে ৯ভরি সোনা লুট করে ডাকাতদলটি দূত পালিয়ে যায়।

মিজানুর রহমান মজনুর ছেলে রনি জানান, গতরাত এক ভয়াবহ রাত গেছে আমাদের পরিবারের উপর দিয়ে। একমাত্র আল্লাহ না চাইলে আমরা বাঁচতে পারতাম না। গেট ভাঙ্গার বিকট শব্দে ঘুম ভাঙে আমার। পরে আমার রুমের দরজা খুলতেই আমাকে বেঁধে ফেলে ডাকাতদল। তার পর আমার উপরে নানা ভাবে নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে কোথায় কি আছে সব বলে প্রাণ ভিক্ষা চেয়ে এখনো বেঁচে আছি আমি।

মৌচাক পুলিশ ফাড়ীর ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে গত রাতেই টহল পুলিশ গিয়েছিল। কিন্ত তার পূর্বেই ডাকাতদলটি পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারটি বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পরবর্তীতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন